রবিবার ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যারা উৎখাতের স্বপ্ন দেখছে, তাদের পায়ের নিচে মাটি আছে কি-না সন্দেহ: প্রধানমন্ত্রী

জাতীয় ডেস্ক   |   বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   |   প্রিন্ট   |   64 বার পঠিত   |   পড়ুন মিনিটে

যারা উৎখাতের স্বপ্ন দেখছে, তাদের পায়ের নিচে মাটি আছে কি-না সন্দেহ: প্রধানমন্ত্রী

সরকারের পায়ের নিচে মাটি নেই বলে যারা উৎখাতের স্বপ্ন দেখছে তাদের পায়ের নিচে মাটি আছে কি-না সেই প্রশ্ন রেখে অপকর্মকারীদের বিরুদ্ধে সজাগ থাকতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, যারা সরকারের পায়ের নিচে মাটি খোঁজে, তাদের পায়ের নিচে মাটি আছে কি-না, সেটি সন্দেহ। এখনও শুনি সরকার নাকি উৎখাত করে ফেলবে। আমাদের পায়ের নিচে নাকি মাটিই নেই।

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি পদে দলের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সঙ্গে সাক্ষাতকার অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াতের জ্বালাও-পোড়াও ও অগ্নি-সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যথাযথভাবে সাক্ষী দিতে হবে, যাতে তাদের সাজা হয়, তার জন্য ব্যবস্থাও নিতে হবে। এদের কিন্তু ছেড়ে দেওয়া যাবে না। কারণ তারা দেশের শত্রু, জাতির শত্রু, আমাদের স্বাধীনতার শত্রু, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার শত্রু।

বিএনপির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমে তারা চেয়েছিল নির্বাচন ঠেকাতে, ঠেকাতে পারেনি। তাদের প্রভুরা আছে, তাদেরও চেষ্টা ছিল, কিন্তু তারা সেটা পারেনি। কারণ বাংলাদেশের জনগণই আমাদের শক্তি। পঁচাত্তর পরবর্তী বাংলাদেশের যতোগুলো নির্বাচন হয়েছে, সব থেকে অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন এবারই হয়েছে। আর এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণ আওয়ামী লীগের ওপর আস্থা রেখেছে, আমাদের ভোট দিয়েছে, আমরা সরকারে এসেছি।’

বিএনপি নেতাদের বক্তব্যের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারা লম্বা লম্বা কথা বলে, বিপ্লব করবে। বিপ্লব করতে করতে তারা ক্ষয়িষ্ণু হয়েছে। তবে করুক। এটা করা দরকার। তারাও রাজপথে থাকুক, এতে সাধারণ মানুষও সুবিধা পায়। কিন্তু একটা কথা মনে রাখতে হবে কেউ যেন অগ্নি-সন্ত্রাস, দুর্নীতি এবং কোনো রকম অপকর্ম যেন করত না পারে, সেজন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস সবচেয়ে ভালোভাবে আমরা কিন্তু মোকাবিলা করতে পেরেছি। আমরা জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস চায় না। আমরা চায়, দেশের মানুষ শান্তিতে থাকুক। শান্তিপূর্ণ পরিবেশ থাকলে দেশের উন্নতি হয়।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মা-বাবা যেভাবে জীবন দিয়েছে মানুষের ভাগ্য গড়তে প্রয়োজনে আমিও নিজের রক্ত ঢেলে দেব। মানুষের জন্যই কাজ করে যেতে চাই।’

এ সময় নারী ক্ষমতায়নে তার সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রতিটি ক্ষেত্রে নারীদের অগ্রযাত্রা চলছে। মেয়েদের যেখানে দেই তারা সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে। একটা সময় ছিল, মা-বাবা মেয়েদের বেশি পড়াতে চাইতো না। এখন মেয়েরা সব ক্ষেত্রে তাদের দক্ষতা দেখাচ্ছে। নারী পুরুষ একসঙ্গে কাজ করলে দেশ এগিয়ে যাবে।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদে দলের ৪৮টি আসনের জন্য ১ হাজার ৫৪৯ জনের মনোনয়ন ফরম নেওয়াকে নারী জাগরণ বলে মনে করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, অনেকে জানেন, পাবেন না, তারপরও ফরম কেনা মানে যোগ্যতা জানান দেওয়া। সবাই-ই যোগ্য। এখন যদি কেউ পেছনে পড়ে থাকে, তাদের টেনে তোলার দায়িত্ব আজকের এই নেতৃত্বের।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সংগঠন করতে হবে, মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে, তাদের আস্থা অর্জন করবে হবে। তৃণমূলে গিয়ে জনগণের জন্য কাজ করতে হবে। একটা কথা মনে রাখতে হবে, কেউ জায়গা করে দেয় না, জায়গা করে নিতে হয়।

Facebook Comments Box

Posted ১২:৪৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

nykagoj.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  
সম্পাদক
আফরোজা ইসলাম
কন্ট্রিবিঊটিং এডিটর
মনোয়ারুল ইসলাম
Contact

+1 845-392-8419

E-mail: nykagoj@gmail.com